(সপ্তম) ৭ম শ্রেণির ৫ম সপ্তাহের বাংলা এসাইনমেন্ট ২০২১ এর উত্তর

৭ম শ্রেণির ৫ম সপ্তাহের বাংলা এসাইনমেন্ট ২০২১ এর উত্তর


মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর থেকে (সপ্তম) ৭ম শ্রেণির ৫ম সপ্তাহের বাংলা এসাইনমেন্ট ২০২১ প্রকাশ করা হয়েছে। তৃতীয় সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্টের পর অ্যাসাইনমেন্ট স্থগিত করা হয়। সেই স্থতিগাদেশ উঠিয়ে নিয়ে আবারো মাধ্যমিক লেভেলে অ্যাসাইনমেন্ট চালু করা হয়েছে। এটি ৫ম সপ্তাহের অ্যাসাইমেন্ট। এই স্যাসাইনমেন্টে ৬ষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণির বিজ্ঞান, চারু ও কারুকলা বিষয় এবং নবম শ্রেণির জন্য রসায়ন, ব্যবসায় উদ্যেগ, ভূগোল ও পরিবেশ আছে।

৭ম শ্রেণির ৫ম সপ্তাহের বাংলা এসাইনমেন্ট ২০২১ 

মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষার্থীর জন্য অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর বা সমাধান তোমরা এই সাইটেই পেয়ে যাবে। তোমরা যারা ৭ম শ্রেণির শিক্ষার্থী তাদের জন্য নিয়ে ৫ম সপ্তাহের বাংলা এসাইনমেন্ট ২০২১ প্রকাশ করা হলো। এই অ্যাসাইনমেন্টে তোমরা বাংলা বিষয়ের উত্তর পেয়ে যাবে। তাই তোমাদের সুবিধার্তে ৭ম শ্রেনির বাংলা এসাইনমেন্ট ৫ম সপ্তাহ ২০২১ নিচে দেওয়া হলো।

সপ্তম শ্রেণির ৩য় সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্টটি ছিলো বিজ্ঞান সেই এসইনমেন্টটি যারা লিখে ফেলেছো তাদের জন্য এই ৫ম সপ্তাহের বাংলা এসাইনমেন্টটি। এই বাংলা অ্যাসাইনমেন্ট এর সাথে তোমাদের কর্ম ও জীবনমূখী শিক্ষার অ্যাসাইনমেন্ট লিখতে হবে ৫ম সপ্তাহের জন্য। 

তোমরা যারা এই ৫ম সপ্তাহের ৭ম শ্রেণির বাংলা অ্যাসাইনমেন্ট টি লিখবে তাদের জন্য নির্দেশনা হলো তোমরা এই এসাইনমেন্টের প্রশ্নটি আগে ভালো করে পড়ে নিবে তারপর উত্তর লেখা শুরু করবে। নিচে বাংলা ৫ম সপ্তাহ ২০২১ এর প্রশ্নটি দেওয়া হলো।

আরো পড়ুনঃ

৭ম শ্রেণির ৫ম সপ্তাহের বাংলা এসাইনমেন্ট ২০২১ এর প্রশ্ন

বিষয় বাংলা
অধ্যায় ও অধ্যায়ের শিরোনামঃ পদ্য

পাঠ্যসূচিতে অন্তর্ভূক্ত পাঠ নম্বর/শিরোনাম/বিষয়বস্তুঃ 
কুলি-মজুর (কাজি নজরুল ইসলাম)
বাংলা অ্যাসাইনমেন্ট ক্রমঃ অ্যাসাইনমেন্ট-১
এসাইনমন্টে বা নির্ধারিত কাজ -০২
এসাইনমেন্ট বা নির্ধারিত কাজঃ 
৭ম শ্রেণির বাংলা অ্যাসাইনমেন্ট ৫ম সপ্তাহ ২০২১ নির্ধারিত কাজ


বাংলা  অ্যাসাইনমেন্ট লিখনে নির্দেশনাঃ 
* শিক্ষার্থীরা পাঠ্যবইয়ের 'কুলি- মজুর" কবিতা থেকে সহায়তা নিয়ে এবং প্রয়োজনে অন্য উৎসের সহায়তা নিয়ে উপস্থাপন করবে।
* অবদান ৪-৫ বাক্যে
* মুল্যায়ন অনধিক দশ বাক্য । 
* প্রয়োজনে একাধিক পৃষ্ঠায় লিখ ।
মূল্যায়ন নির্দেশিকা বা রুব্রিক্সঃ
অতি উত্তম | ১.বিষয়বন্তুর সঠিকতা
২.যথাযথ তথ্য 
৩. বানান শুদ্ধতা
৪. সূজনশীলতা
উত্তম: ১টির ক্ষেত্রে ঘাটতি
ভালো: ২-৩টির ক্ষেত্রে ঘাটতি
অগ্রগতি প্রয়োজন: সকলক্ষেত্রেই ঘাটতি
৭ম শ্রেণির বাংলা অ্যাসাইনমেন্ট ৫ম সপ্তাহ ২০২১


৭ম শ্রেণির ৫ম সপ্তাহের বাংলা এসাইনমেন্ট ২০২১ এর উত্তর

সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলতে চাই তোমরা হয়তো উপর থেকে তোমাদের কাঙ্খিত প্রশ্নগুলো দেখেছো। এখন এই  প্রশ্নগুলোর আলোকে নিচের উত্তরটি লেখা হয়েছে। তোমরা উত্তটি শুধুমাত্র নমুনা উত্তর হিসেবে বিবেচনা করে নিজের মত করে লিখবে। তোমরা যাদি নিজের মত করে না লিখে শুধু হুবুহু কপি করে লিখ তাহলে তোমাদের দক্ষতা বৃদ্ধি পাবেনা। তাই তোমরা তোমাদের ভালোর জন্যই ৭ম শ্রেণির ৫ম সপ্তাহের বাংলা এসাইনমেন্ট ২০২১ এর উত্তর নিজে থেকে লেখার চেষ্টা করবে।

অ্যাসাইনমেন্ট  শুরু

আজকের আধুনিক সভ্যতার ভিত্তি হলো শ্রমজীবী মেহনতি মানুষের নিরলস পরিশ্রম । হাজার হাজার বছর ধরে শ্রমজীবী মানুষের রক্ত-ঘামে মানবসভ্যতার উৎকর্ধ সাধিত হয়েছে। কিন্তু সেই শ্রমজীবী জনগোষ্ঠীই থেকেছে উপেক্ষিত । আজকের আধুনিক উন্নত সমৃদ্ধ পৃথিবীর কারিগর এসব অবহেলিত, নিযাঁতিত, নিপীড়িত, অধিকার বঞ্চিত শ্রমজীবী মানুষের অধিকার আদায়ে অব্যাহত রয়েছে নিরন্তর সংগ্রাম । সময়ের পরিক্রমায় এই অধিকার শব্দটির সুদৃঢ় শক্তি সামাজিক ও রাজনৈতিক চিন্তা-চেতনা, ধ্যান-ধারণা এবং দর্শনকে প্রভাবিত করেছে, পরিবর্তন সাধিত করেছে।

সমাজে শ্রমজীবী মানুষের অবদান এবং তাদের কীভাবে মুল্যায়ন করবো তা নিচের ছকে উল্লেখ করা হলো।

মোবইলে দেখলে মোবইলটা আড়াআড়ি করে নিবে

ক্রম

শ্রমজীবির নাম

সমাজে তাদের অবদান

তাদের কীভাবে মূল্যায়ন করবো

কুলি

মুচিরা রেলস্টেশনে যাত্রীদের মালামাল নিদিষ্ট

স্থানে পৌঁছে দেয়। কুলিরা

বাস স্টেশন কিংবা নৌঘাটে

যাত্রী,পরিবহন সামগ্রী উঠা

নামানোর কাজ করে

থাকে । বিভিন্ন বাণিজ্যিক

পণ্য পরিবহনের কাজও

কুলিরা করে থাকেন ।

এছাডাও তাদেরকে ভূ গর্ভস্থ খনি হতে মালামাল উঠানোর কাজে সহায়তা করে।

আবহমান কাল থেকে সারা বিশ্বের সব সৃষ্টির নিমাতা হলো শ্রমিক কর্মচারী ও মেহনতি মানুষ । যুগ যগ ধরে কুলি-মজুরের মত লক্ষ কোর্টি শ্রমজীবী মানুষের হাত ধরে গড়ে উঠেছে মানব সভ্যতা । কুলি যিন তার অক্লান্ত পরিশ্রমের  মাধ্যমে আয় করছেন। শ্রদ্ধার সাথে দেশের প্রগতির জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। এবং মালামাল এক স্থান থেকে অন্য স্থানে পরিবহন করছেন। তাদের শ্রম দিয়ে আমাদের অথনীতির বুনিয়াদ সৃষ্টি করছি।

কুলি-মজুরদের শ্রম ছাড়া কোন

কিছুই উৎপাদিত হতে পারে না।

দেশের অথনৈতিক উন্নয়নে

শ্রমজীবী মানুষের মেধা ও

পরিশ্রমের অবদান ছাডা কিছুই

করা সম্ভব নয়। কুলি মজুরদের .

আমরা কখনো ছোট চোখে দেখবো না।

রাজমিস্ত্রি

রাজমিস্ত্রি ইট, সিমেন্ট, বালি দিয়ে আমাদের  ঘর-বাড়ি তৈরি করেন।

একজন রাজমিস্ত্রি কোন

নির্মাণ কাজ শুরু থেকে

শেষ পযন্ত তার

সহযোগীদের সাথে মিলে

সম্পন্ন করেন। পাইলিং,

ভবনের অবকাঠামো দাঁড়

করানো ছাদ ঢালাই ইত্যাদি কাজ করে থাকেন। তাছাড়াও কার্লভাট তৈরি থেকে শুরু

করে সীমানা প্রাচীর

তৈরি,গুদাম ঘর তৈরি

প্রতি কাজ রাজমিস্ত্রি করে

থাকেন।

বিশ্বে মানবসভ্যতা গড়ে্উঠেছে

মানুষের শ্রমের বিনিময়ে । একটি

দেশের উন্নয়নের অন্তরালে থাকে

ব্যথা বেদনা । কিন্তু সে অনুযায়ী

শ্রমিকদের সুযোগ সুবিধা বাড়ছে

না। যাদের ঘামে একটি একটি ইট

দেশ এগিয়ে যাচ্ছে তাদের যথাযথ

সম্মান দেওয়া আবশ্যক। তাদের তৈরি করা ধরেই আমরা শান্তি করে ঘুমাচ্ছি। এ সকল শ্রমজীবি মানুষ হচ্ছে উৎপাদনি, শিল্পোন্নয়ন, অর্থনৈতিক  উন্নয়নের অপরিহার্য উপাদান ।

যাদের অক্লান্ত পরিশ্রমের মধ্যে

নিহিত থাকে দেশের সম্ভাবনাময়

ভবিষ্যৎ । তাই আমাদের উচিত

তাদেরকে সম্মান দেওয়া, তাদের

এই কাজটাকে আরো বেশি সম্মান

দেওয়া এবং তাদেরকে ছোট

চোখে না দেখা।

কামার

কামার একট প্রাচীন

পেশা । যার কাজ লোহার

জিনিসপত্র তৈরি করা ।

গৃহস্থালি এবং কৃষিকাজে

ব্যবহৃত অধিকাংশ

লেহজাত যন্ত্রপাতি কামাররা প্রস্তুত করেন । এগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে দা, বটি, শাবল, কাচি,

ইত্যাদি । তাছাড়াও তারা বিভিন্ন জিনিস তৈরি করে আমাদের সুবিধা করে দেন।

বাংলাদেশ কৃষি প্রধান দেশ।

কামারের কায়িক শ্রমে তৈরি হয়

কৃষি ও শিল্প কারখানার নানান

সামগ্রী । সভ্যতা বিনিমাঁণের

কারিগর এ শ্রমজীবী মানুষরা

সবদাই অবহেলিত উপেক্ষিত।

কর্মক্ষেত্রে নিরাপত্তা ও মৌলিক

চাহিদাগুলো অবশ্যই আমাদের

নিশ্চিত করতে হবে । কামার আছে বলেই কিন্তু আজ আমরা লোহার জিনিস

পত্রগুলো ব্যবহার করতে পারছি।

তারা না থাকলে হয়তো আজ

আমরা লোহার জিনিসপত্রগুলো

ব্যবহার করতে পারতাম না।

সমাজে একজন সাধারন মানুষের উচিত তাদের সম্মান ও সাহায্য করা এবং তাদের অবদান স্বীকার করা।

মুচি

মুচি জুতা তৈরি এবং জুতা

মেরামতের কাজ করেন ।

ত্রুটিযুক্ত এবং পুরনো জুতা, সেন্ডেল মেরামত করে আবার রং মাখিয়ে পুরাতন কাজও করে থাকেন। মুচি

সংগৃহীত চামড়া ব্যবহার

উপযোগী।করে তোলেন

অথবা বিক্রির জন্য প্রস্তুত করে দেন। তাই বলা যায় আমাদের দৈনন্দিন জীবনে তাদের অনেক অবদান রয়েছে।

যাদের ত্যাগে আমরা সভ্য সমাজে

মরযাদা নিয়ে পথ চলতে পারি মুচি

সম্প্রদায় তাদের মধ্যে অন্যতম।

শব্দটিকে খুবই অসম্মানজনক মনে

করা হয়। অর্থনৈতিক বা সামাজিক

প্রেক্ষাপট যা-ই থাকুক, মুচির

পেশায় নিয়োজিত ব্যক্তিরা এখনও

নীচুশ্রেণির মানুষ বলেই গণ্য । রাস্তায় বসে জীবন কাটিয়ে দেন

সেই সব শ্রমজীবী দলিত

পরিবারগুলোকে নিচু চোখে দেখে

আলাদা করে রাখি আমরা ।

আমাদের উচিত সৎ,পরিশ্রমী ও

সংগ্রামী মানুষ হিসেবে মুচিকে

সম্মানের চোখে দেখা ।


অ্যাসাইনমেন্ট  শেষ

আরো পড়ুনঃ

৫ম সপ্তাহের ৭ম শ্রেণির বাংলা এসাইনমেন্ট ২০২১

তোমরা যারা ৭ম শ্রেনির বাংলা অ্যাসাইনমেন্টটি লিখলে তাদের তারা হয়তো এবার ৭ম শ্রেণির কর্ম ও জীবনমূখী শিক্ষা অ্যাসাইনমেন্টটি লিখবে। তাদের জন্য বলবো তোমরা কর্ম ও জীবনমূখীর উত্তর একানেই পাবে। উপরের লিংক থেকে উত্তরটা দেখে নাও।

সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা তোমরা তোমাদের অ্যাসইনমেন্টগুলোর উত্তর তাড়াতাড়ি ও সহজে পেতে আমাদের ফেজবুক পেজে লাইক ও ফেজবুক গ্রুপে জয়েন করতে পারো। অথবা আমাদের ইউটিবউ চ্যনেলে সাবসক্রাইব করতে পারো। নিচে লিংকগুলো দেওয়া হলো।

আমাদের ইউটিউব লিংক

https://www.youtube.com/channel/UCea_DqYt9NegZgE5A-mdIag

ফেজবুক পেজ (সমস্যা ও সমাধান)

https://web.facebook.com/shomadhan.net

assignment all class (6-9)📝📝

https://web.facebook.com/groups/287269229272391